গল্পসমূহ

শীতে আপনার শিশুর সুরক্ষা

ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী

বাংলাদেশে শীতের তীব্রতা অধিকাংশ ক্ষেত্রেই যেহেতু দীর্ঘ-মেয়াদী হয় না, তাই বেশিরভাগ মানুষ এর বিরুদ্ধে যথেষ্ট সতর্কতামুলক ব্যাবস্থা নেন না। কিন্তু শীতকালীন শুষ্ক আবহাওয়ার সাথে বায়ু দূষণ ও ধূলিকণা যোগ হয়ে বাতাসে হঠাৎ করেই বেড়ে যায় স্বাস্থ্যহানিকর রোগজীবাণুর পরিমাণ এবং এর সাথে তাল মিলিয়ে অতর্কিতে বাড়ে শীতকালীন অসুস্থতা। এসব অসুখের একটা সিংহভাগেরই শিকার হয় শিশুরা।

এবারের শীতে শিশুদের মধ্যে যেভাবে পরিলক্ষিত হচ্ছে শ্বাসপ্রশ্বাস জনিত অসুখ, তেমনি দ্রুত বাড়ছে ত্বক ও পেটের সমস্যা।

“শীতের এই শুষ্ক আবহাওয়ায় শিশুদের মধ্যে নানা ধরনের চর্ম রোগ, আমাশা ও রোটা ভাইরাস-এর প্রাদুর্ভাব লক্ষ্য করা যাচ্ছে। কোন কোন ক্ষেত্রে শিশুদের রক্ত আমাশাও হচ্ছে। তাই এ বিষয়ে অভিভাবকদের সতর্ক হতে হবে, কড়া নজরদারি করতে হবে ও সঠিক সময়ে শিশুদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যাবস্থা গ্রহন করতে হবে,” বলেন বাংলাদেশ বিশেষায়িত হাসপাতালের শিশু বিভাগের প্রধান ডাঃ কাজী নাওশাদুন্নাবি।

শ্বাসপ্রশ্বাসের প্রদাহ, হাঁপানি, ব্রংকাইটিস ও সাইনাসের পাশাপাশি এখন শিশুদের মধ্যে জটিল চর্মরোগ যেমন একজিমা ও পাকস্থলির জটিলতা দেখা যাচ্ছে। “এসব বেশিরভাগ রোগের জীবাণুই বায়ুমণ্ডল থেকে সরাসরি শরীরে প্রবেশ করে। এমনকি রোটা ভাইরাসের জীবাণুও শ্বাসনালির মাধ্যমে শরীরে প্রবেশ করে,” তিনি জানান।

একারণে শিশুদের অভিভাবকদের প্রতি তিনি আবেদন করেন যাতে তারা এমন শুষ্ক শীতকালীন আবহাওয়ায় শিশুদেরকে বাইরের বাতাস থেকে যথাসম্ভব দূরে রাখেন। যদি কোন বিশেষ কারণে শিশুদেরকে বাইরে নিতেও হয়, সেক্ষেত্রে তাদের কান, নাক ও বুক যাতে ঢাকা থাকে সেদিকে বিশেষ খেয়াল রাখতে পরামর্শ দেন। তিনি শিশুদের মৌলিক পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা বা হাইজিন ও শিশু ও তাদের সেবা প্রদানকারীদের নিয়মিত সাবান দিয়ে হাত ধোবার উপরও জোর দেন।

অন্যদিকে চর্মরোগ থেকে শিশুদের সুরক্ষিত রাখতে চিকিৎসকরা শিশুর ত্বক পরিচর্যার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। শিশুদের ত্বকের পরিচর্যার জন্য তাদের শরীরে তেল ও লোশন প্রয়োগের পাশাপাশি অপরিচ্ছন্ন স্থান থেকে দূরে রাখার পরামর্শ দেন।

 
Search:
For every child
Health, Education, Equality, Protection
ADVANCE HUMANITY
Search: